অবশেষে পরিচয় মিললো ভাই’রাল সেই যুগলের

যুগল ছবিগুলো শ্রীলঙ্কার। কিন্তু বাংলাদেশের সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মে রোববার সকাল থেকেই ছবিগুলো ভাই’রাল হয়ে পড়েছে। থিকসানা ফটোগ্রাফি নামের একটি প্রফেশনাল ফটোগ্রাফি ফেসবুক পেইজে ছবিগুলো প্রকাশ করা হয় শনিবার রাতে। এরপর ক্র’ম’শ সেগুলো ছড়াতে থাকে। ছড়াতে ওয়েব দুনিয়ার সীমানা পেরিয়ে দেশীয় হোমপেইজ দ’খ’ল করে নেয়।

একটু খোঁ’জ নিয়ে জানা যায়, সিংহলিজ ভাষায় একজন প্রফেশনাল ফটোগ্রাফার যুগলের নাম লিখে ছবিগুলো পোস্ট করেন, এবং বলেন এ ধ’রনের ছবি তুলতে চাইলে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। নেট জনতার ছবিগুলো কারণব’শ’ত পছন্দ হয়ে যায়, যার কারণে ক্র’ম’শ শে’য়ার করতেই থাকে। যার ফলে শ্রীলঙ্কা থেকে দেশীয় সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মের হোম পেইজ দ’খ’ল করতে থাকে। ছবির যুগলের নাম যথাক্রমে নেথমি ও বুড্ডিকা। ছবিগুলো ‘পোস্ট উইডিং ফটোগ্রাফি।’ অর্থাৎ বিবাহ পরবর্তী ফটোশে’সনের ছবি এসব।

ছবিগুলোর ম’ন্ত’ব্য পর্যবে’ক্ষণ করে দেখা গেল, সিংহলিজ ভাষায় অসংখ্য নে’টিজেন এই জুটির জন্য বি’স্ম’য় প্রকা’শ করে মন্তব্য করেছেন। থারুসা নামের একজন মন্তব্য করেন, ”কেন এমন ছবি ফেসবুকে দিয়ে আমাদের হৃদয়ে আ’ঘা’ত দাও।” একজন বলেছেন, ”স্কুলে যাওয়ার বয়সে এই ছেলে-মেয়ে বিয়ে করেছে।”

ছবিগুলোর নিচে অর্শি নামের এক বাংলাদেশি তরুণী মন্তব্য করেছেন, ”যাক, এটা দেখে শান্তি লাগছে যে অন্য দেশের মানুষদেরও এগুলো দেখে জ্ব’লে।” এক বাংলাদেশি তরুণ লিখেছেন, ”ওকে বাই, আমি ডিপ্রে’শনে গেলাম।” লুইস নামের এক ভারতীয় তরুণ লিখেছেন, ”এটা কি বাল্যবিবাহ?”