ভ্যাকসিন নিয়ে বড় ঘোষণা আসছে: ট্রাম্প

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস বিশ্বব্যাপী ৩ লাখ ২০ হাজার ১৮০ জন মানুষের জীবন কেড়ে নিয়েছে।

এখন পর্যন্ত এই রোগে মোট ৪৮ লাখ ৯৪ হাজার ৯৮ জন মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। সুস্থ্য হয়েছে ১৯ লক্ষ ৮ হাজার ৬৪ জন মানুষ।

পৃথিবীর সর্বত্র আজ বিজ্ঞান তথা বিজ্ঞানীদের জয়জয়কার। তাহলে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন বাজারে আসতে কেন এতো দেরি হচ্ছে। বিশ্ববরেণ্য বিজ্ঞানীরা কি তাহলে করোনার ভয়ে গবেষণা বাদ দিয়ে ঘরে বসে ঘুমাচ্ছে? প্রকৃত সত্য হচ্ছে, বিজ্ঞানীরা ঘরে বসে নেই, তারা তাদের মনপ্রাণ দিয়ে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় চিকিৎসাবিদ্যা ও ভ্যাকসিন নিয়ে শিগগিরই বড় ঘোষণা আসছে বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

আজ মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে রেস্টুরেন্ট প্রতিনিধি ও ব্যবসায়িক নেতাদের সঙ্গে এক গোলটেবিল বৈঠকে এ কথা জানান তিনি। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।

এ সময় বৈঠকে ট্রাম্প বলেন, চিকিৎসাবিদ্যা ও ভ্যাকসিনের বিষয়ে এটা অনেক বড় একটা দিন। বিশাল উন্নতি হয়েছে। এ নিয়ে অনেক বড় ঘোষণা আসছে। আর এই মাত্র জানা গেল, শেয়ারবাজারে প্রায় এক হাজার পয়েন্ট বেড়ে গেছে।

সম্প্রতি করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে বিশ্বব্যাপী ১১৫টি ভ্যাকসিন বা টিকা নিয়ে গবেষণা চলছে বলে জানিয়েছে দ্য কোয়ালিশন ফর প্রিপেয়ার্ডনেস ইনোভেশনস (সিইপিআই)। ইতোমধ্যে মানবদেহে বেশ কয়েকটি ভ্যাকসিন প্রয়োগের পরীক্ষাও শুরু হয়ে গেছে।

তবে ইউরোপিয়ান মেডিক্যাল এজেন্সির (ইএমএ) বলেছে, সবচেয়ে দ্রুত হলেও এই টিকা অনুমোদনের জন্য প্রস্তুত হতে কমপক্ষে এক বছর সময় লাগতে পারে।

ইএমএর প্রধান মার্কো ক্যাভালেরি বলেছেন, সবকিছু পরিকল্পনামাফিক এগোলে এখন থেকে এক বছরের মধ্যে, অর্থাৎ ২০২১ সালের শুরুর দিকে কয়েকটি (টিকা) অনুমোদনের জন্য প্রস্তুত হতে পারে। আমরা যা দেখতে পাচ্ছি তার ওপর নির্ভর করে কিছু আগাম বার্তা দেয়া হচ্ছে মাত্র।

তিনি আরও জানান, তারপরও বলতে হবে সবচেয়ে ভালো পরিস্থিতি থাকলেই কেবল এক বছরের মধ্যে করোনা ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে।