আমি একটা কাকতাড়ুয়া: পরীমনি

ফসলের জমিতে এক সময় কৃষকরা কাকতাড়ুয়া (মানুষের প্রতীক) বানিয়ে পুঁতে রাখত। তাদের বিশ্বাস ছিল জমিতে কাকতাড়ুয়া থাকলে ফসলে রোগ, পোকা মাকড় হবে না এবং কারো কুনজর লাগবে না। এতে ফলন ভালো হবে। তবে কালের আবর্তে হারিয়ে যাচ্ছে সনাতন এই পদ্ধতিগুলো।

এবার কাকতাড়ুয়ার ভঙ্গিমায় দাঁড়িয়ে নিজেকে কাকতাড়ুয়া দাবি করলেন ঢাকাই সিনেমার আলচিত চিত্রনায়িকা পরীমনি। ফসলের জমির কাকতাড়ুয়া ফসল পাহারা দিলেও পরীমনি পাহাড়া দিচ্ছেন মেঘ। এক ভিডিও পোস্ট করে এ কথায় বললেন পরীমনি।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) সকালে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে একটি ভিডিও পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেন, আমিই তো…। ভিডিওতে তিনি বলেন, আমি একটা কাকতাড়ুয়া। আমি মেঘ পাহারা দেই। আমি একটা কাকতাড়ুয়া। আমি মেঘ পাহারা দেই।

এর আগে গতকাল বুধবার (১১ মে) স্বামী শরিফুল রাজের সঙ্গে কিছু ছবি পোস্ট করেন পরীমনি। সেই ছবির ক্যাপশনে পরী লিখেন, আমি ভাগ্যবান, জীবন কাটানোর জন্য উপযুক্ত সঙ্গী খুঁজে পেয়েছি।

ছবিতে দেখা যায়, সৈকতে থাকা একটি নৌকার পাশে দাঁড়িয়ে আছেন পরীমনি ও রাজ। একই নকশার শার্ট পরেছেন দুইজন। সাদা রঙের প্যান্ট পরেছেন রাজ আর পরী পরেছেন হলুদ শর্টস। তারা একে-অপরকে প্রেমময় ভঙ্গিমায় জড়িয়ে আছেন।

প্রসঙ্গত, গিয়াসউদ্দিন সেলিমের পরিচালনায় ‘গুণিন’ সিনেমায় কাজ করতে গিয়ে প্রেমে জড়ান পরীমনি ও রাজ। পরে গত বছরের ১৭ অক্টোবর একান্ত গোপনে বিয়ে করেন তারা। তবে গত ১০ জানুয়ারি বিয়ের কথা ও মা হওয়ার বিষয়টি জানান পরীমনি। এরপর ২২ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে করেন তারা।