কাঁচা বাদামের পর এবার ভাইরাল লাড্ডু গান

কাঁচা বাদামের পর এবার ভাইরাল লাড্ডু গান – বর্তমান সময়ে বিনোদন অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হয়ে উঠেছে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া সাইট। আট থেকে আশি সকলেই কোনো না কোনো সোশ্যাল মিডিয়াতে অ্যাকাউন্ট খুলে রাখে। বর্তমানে এই সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে রাতারাতি স্টার হয়ে যায় অনেক মানুষ।

কি শুনে বিশ্বাস হল না! আচ্ছা যারা সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করেন তারা সকলেই সম্প্রতি বাদাম কাকুর নাম শুনেছেন। বীরভূমের ভুবন বাদ্যকরের ‘কাঁচা বাদাম’ গান শোনেননি এমন মানুষের সংখ্যা হয়তো খুবই কম হবে। তিনি বাদাম বিক্রি করতে করতে বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার স্টার একজন। লোকের ঘরে ঘরে বাজছে জনপ্রিয় বাদাম সং রিমিক্স।

কাঁচা বাদামের
আসলে বাদাম বিক্রি করার জন্য বীরভূমের ভুবন কাকু গান গেয়ে ক্রেতাদের মন আকর্ষণ করার প্ল্যান করেছিলেন। তবে তাঁর গানের গলা মুগ্ধ করেছে সকলকে। দেশে বিদেশের বড় বড় শিল্পী, বাদাম কাকুর সাথে কাজ করার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন। তবে বাদাম কাকুর পর সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে মধ্যপ্রদেশের এক লাড্ডু বিক্রেতা। জানা গিয়েছে, মধ্যপ্রদেশের সিবনি জেলার একটি গ্রামে সাইকেলে ঘুরে ঘুরে কাল্লু কেবট নামের এক যুবক লাড্ডু বিক্রি করে। বিক্রি করার সাথে সাথে সে অসাধারণ এবং অদ্ভুত ছন্দে গান করেন। তাঁর গানের মিষ্টি গলা শুনলে মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে যাবেন।

সোশ্যাল মিডিয়াতে মিথিলেশ ধর নামক এক ব্যক্তি ওই লাড্ডু বিক্রেতার ভিডিও শেয়ার করেন। তিনি নেটিজেনদের এই ভিডিওটি দেখার জন্য অনুরোধ করেছেন এবং লাড্ডু বিক্রেতার অসম্ভব সুন্দর গানের গলা ভূয়শী প্রশংসা করেছেন। বলা মতই কাজ হয়েছে। ইতিমধ্যেই ভিডিওটিতে লাইক ও কমেন্ট এর বন্যা বইয়ে দিয়েছেন নেটিজেনরা। সকলে কাঁচা বাদামের পর লাড্ডু গানে মন দিয়েছেন। মনে করা হচ্ছে, ওই শ্রুতিমধুর গান সম্ভবত কাল্লু নিজেই লিখেছেন এবং সুর দিয়েছেন।

প্রসংগত উল্লেখ্য, সুদূর দক্ষিণ আফ্রিকার শিল্পী ডেভিড স্কট ভুবনবাবুর গানে মুগ্ধ হয়ে, তাঁর সাথে কাজ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। এছাড়া ভুবন বাবুর গান রেকর্ড করে বিদেশি সংগীতপরিচালক পুরো টাকাটাই তাঁকে দিতে চেয়েছেন। এক কথায় বলতে গেলে ভাগ্য ফিরেছে বাদাম কাকুর। তবে ট্রেন্ডে গা ভাসিয়ে জনপ্রিয়তা পাবে কি লাড্ডু বিক্রেতা কাল্লু? সেটাই দেখার।