স’হবাসে অ’ক্ষম”… স্ত্রীর এই অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণ করতে অন্য ম’হিলার স’ঙ্গে স’হবাসের ভিডিও পাঠালেন স্বা’মী…

খবরের কাগজে বা নিউজ চ্যানেলে আমরা প্রতিদিন কিছু না কিছু নতুন ঘ’টনার সম্মুখীন হই। প্রায়ই কিছু খা’রাপ ঘ’টনার খবর আমরা জানতে পারি। তবে এরকম ঘ’টনা খুব একটা শোনা যায় না। আজ আপনাদের এমন একটি ঘ’টনা জানাবো যা জানলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন। আসল ঘ’টনাটি হল এক ম’হিলা এবং তার স্বা’মীকে নিয়ে। স্ত্রী তার স্বা’মীর উপর নপুংসকতার অভিযোগ নিয়ে আসে।

এই অভিযোগে সে তার স্বা’মীর থেকে ডিভোর্সের আবেদন করে। এমনকি তাকে ঠকানোর জন্য স্বা’মীকে জে’ল খাটায়। তার পুরু’ষত্বে আ’ঙ্গুল ওঠার পর তার যোগ্য জবাব দেওয়ার জন্য স্বা’মী একদিন অন্য ম’হিলার স’ঙ্গে স’হবাসের ভিডিও করে পাঠিয়ে দেয় তার শ্বশুরের কাছে।

আসুন জেনে নিন তাহলে আসল ঘ’টনা কি ঘটেছিল… রিপোর্ট অনুযায়ী এই ঘ’টনাটি ঘটেছে হায়দ্রাবাদের লাল বাহাদুর এলাকায়। এই এলাকায় বসবাসকারী বিবা বসুর সাথে মুতামিজ নগরের কাছে বাস করা অনুষার বিয়ে হয়। দু বছর আগে তাদের বিয়ে হয়েছিল।

বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই তাদের মধ্যে অশান্তি শুরু হয়ে যায়। তাদের নানা কারনে প্রায় প্রতিদিন ঝ’গড়া হত। একদিন তাদের তুমুল অশান্তি হওয়ায় মে’য়েটি বাপের বাড়ি চলে যায়। আর কিছুতেই শ্বশুরবাড়ি ফিরতে চায় না। সে কেনো ফিরছেনা তার উত্তর কারোর কাছে ছিলনা।

অনুষা ও বিবা দুজনের কেউই তাদের সমস্যা মেটাতে রাজি ছিলনা। তারপর অনুষার বাড়ি থেকে কোর্টে ডিভোর্সের জন্য আবেদন জানানো হয়। তখনই অনুষা কোর্টে জানান যে তার স্বা’মী নপুংসক, তাই সে তার স্বা’মীর স’ঙ্গে আর সংসার করতে চায় না।

অনুষার অভিযোগ ছিল তার স্বা’মী স’হবাসে অ’ক্ষম। এই অভিযোগের কথা যখন বিবা জানতে পারে তখন প্রচন্ড রেগে যায়। সে ঐ অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণ করার জন্য অন্য এক ম’হিলার সাথে স’হবাস করে তার একটি ভিডিও বানায়।

শা’রীরিক সম্প’র্কের সময় সেই স্থানে দুই জন ছাড়া আরো একজন ছিল। সেই ব্যাক্তি যে পুরো ঘ’টনা ক্যামেরা ব’ন্দি করেছিল। তারপর সেই ভিডিও ক্লিপ পাঠিয়ে দেয় তার স্ত্রী এবং শ্বশুরের কাছে।

এরকম কাজ করার পর অনুষার পরিবার আবার পু’লিশের কাছে যায়। তারপর পু’লিশের জি’জ্ঞাসাবাদের পর বিবা স্বীকার করেন যে, তার স্ত্রীর অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণ করার জন্য সে এরকম কাজ করেছে।