চার দিন ধরে অনশন করে স্বীকৃতি পেল পপি, ৬ লাখ ১ টাকা দেনমোহরে বিয়ে

স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে চার দিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অ’নশ’ন করছিলেন প্রেমিকা পপি। অবশেষে তিনি স্ত্রীর স্বী’কৃতি পেলেন। সোমবার (১১ জানুয়ারি) বিকেল সোয়া ৫টার দিকে নলডাঙ্গা উপজেলার পিপরুল ইউনিয়নের ঠাকুর লক্ষ্মীকোল মদনহাট পাবনাপাড়া গ্রামে প্রেমিকের নিজ বাড়িতে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

বিয়েতে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম, পিপরুল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান কলিম উদ্দিন ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। বরের নাম সাইফুল ইসলাম। তিনি একই গ্রামের সিদ্দিক মোল্লার ছেলে এবং কনে পপি একই উপজেলার সোনারমোড় এলাকার মৃ’ত আব্দুস সোবাহানের মেয়ে।

বিয়েতে ৬ লাখ ১ টাকা দেনমোহর ধার্য করা হয়। এই ঘটনায় এলাকায় খুশির আমেজ বিরাজ করছে। এর আগে গত বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) থেকে স্ত্রীর স্বী’কৃ’তির দাবিতে প্রেমিক সাইফুলের বাড়িতে অবস্থান নেন পপি। নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম ও স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরেই সাইফুল এবং পপি মধ্যে প্রেমের স’ম্প’র্ক ছিল। পরে বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর গত বছরের আগস্ট মাসে তারা গাজীপুরে অবস্থান নেন।

সেখানে স্বামী-স্ত্রীর পরিচয়ে দীর্ঘদিন থাকার পরে সম্প্রতি সাইফুল বাড়ি চলে আসেন। পরে পপি বিয়ের জন্য চাপ দিলে নানা টা’লবাহা’না করতে থাকেন সাইফুল। পরে কোনো উপায় না দেখে বিয়ের দা’বিতে প্রেমিক সাইফুলের বাড়িতে অ’ন’শন শুরু করেন পপি।