বাড়বে আয়ু,কমবে হৃদ রোগের সম্ভাবনা তার জন্য বউয়ের সাথে কথা বলতে হবে বেশি বেশি

আজকাল বেশিরভাগ মানুষই হৃদরোগের সমস্যায় ভোগেন।

তার জন্য অনেক ওষুধ খান এবং হাসপাতালেও অবধি দৌড়ঝাঁপ করেন কিন্তু মা’র্কিন গবেষকরা বলছেন সমাধান আছে আপনার চোখের সামনে।

নিজের জীবনসঙ্গিনীর সঙ্গে বেশি করে সময় কা’টান, মন খুলে কথা বলুন তাহলেই কমবে হৃদরোগের সম্ভাবনা বাড়বে আপনার আয়ু। এমনটাই বলছে গবেষণা।

বয়স অনুপাতে অনেকেরই চোখের নিচের চামড়া কুচকে যায়! যদিও চেহারায় বয়সের ছাপ প্রথম ধ’রা পড়ে চোখের চারপাশের বলিরেখাতেই। তবে আপনি যদি সঠিক যত্ন নেন, তাহলে খুব সহ’জেই এই বলিরেখা দূর হবে। ঘরোয়া অনেক উপায়ের এই বলিরেখা দূর করা সম্ভব হলেও একটি উপায় রয়েছে যা দ্রুত বলিরেখা দূর করবে।
আপনি নিশ্চয়ই জা’পানিজদের দেখেছেন! তাদের সুন্দর ত্বকের কদর বিশ্ব জুড়েই। যদিও তারা অনেক নিয়ম কানুনের মধ্য দিয়ে তাদের সৌন্দর্য ধরে রাখে। ত্বকে যাতে বয়সের ছাপ না পড়ে এজন্য তারা ফেসিয়ালসহ ত্বকের বিভিন্ন ম্যাসেজ করে থাকে। কারণ এতে ত্বকের ভেতরের র’ক্ত সঞ্চালন ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

জানেন কি? জা’পানিরা কেমিক্যালযুক্ত প্রসাধনীর চেয়ে প্রাকৃতিক ও ম্যাসাজ থেরাপির মাধ্যমেই তাদের সৌন্দর্য ধরে রাখে। এজন্য সহ’জেই বলিরেখা দূর করতে চাইলে এই কাজটি প্রতিদিন করুন-

পদ্ধতি: দুই হাতের তর্জনী আঙ্গুল দ্বারা দুই চোখের শেষ দিকে কিছুক্ষণ চাপ দিয়ে রাখু’ন। এরপর নখ দিয়ে টেনে ধরুন। এভাবেই কিছুক্ষণ করুন। যখন আপনি নির্দিষ্ট পয়েন্টে প্রেসার দিবেন তখন ত্বকের র’ক্ত সঞ্চালন বেড়ে যাবে। এছাড়াও ত্বকের লিমফেটিক ফ্লুইডের সঞ্চালনও বেড়ে যায়। আর এ কারণেই ত্বকের ইলাস্টিসিটি বেড়ে যায়। যার ফলে ত্বকে বলিরেখা পড়ে না।

এবার আসা যাক, নাকের পাশের বলিরেখা দূর করার উপায় প্রসঙ্গে। এজন্য দুই ভ্রূ’র মাঝখানে মাঝের তিন আঙ্গু দ্বারা চাপ দিয়ে ধরে রাখু’ন ৫ থেকে ৭ সেকেন্ড। এভাবেই অন্তত দু’বার করুন। এবার দুই চোখের নিচ বরাবর ১০ সেকেন্ড চেপে ধরে রাখু’ন। এটাও অন্তত দু’বার করুন।

এই দুই পদ্ধতি নিয়মিত মেনে চললে ত্বকে বলিরেখা পড়ার কোনো সুযোগ থাকবে না। এছাড়াও নিয়মিত ফেসিয়ালে ত্বকের সুফল পাওয়া যায়।