ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা লেবু খাওয়ার আশ্চর্য উপকারিতা

ভিটামিন সি এর উৎস হিসেবে লেবু সকলের নিকট বেশ পরিচিত। নিয়মিত লেবু পানি খেলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। আর একারণে সব রান্নাঘরেই লেবু একটা অ’পরিহার্য খাবার। তবে স্বাভাবিক তাপমাত্রার লেবুর তুলনায় ডিপ ফ্রিজে জমিয়ে লেবু খাওয়ার উপকারিতা অনেক বেশি।

মূলত ফ্রীজে জমিয়ে লেবু খেলে এর কোনো অংশই বাদ যায় না এবং পুরোটাই ব্যবহার করা যায়। এক্ষেরে লেবুটিকে প্রথমে ফ্রিজের ডিপে রেখে দিয়ে তারপর জমে বরফ হয়ে গেলে সেটিকে গ্রেট করে খাবারের ওপর ছড়িয়ে দিতে হবে। এতে একদিকে খাবারের স্বাদ ও গুণ বৃদ্ধি পাবে অপরদিকে লেবুর সবটুকি খাদ্যগুণ গ্রহণ সম্ভব হবে।

এক গবোষণায় দেখা গেছে লেবুর মত সিটরাস প্রজাতির ফলে লিমনয়েডস থাকে। যা স্তন ক্যান্সারকে প্রতিরোধ করে। এছাড়া লেবুর কোলন, স্তন, প্রোস্টেট, অগ্নাশয়, ফুসফুস সমেত ১২ রকমের ক্যান্সার কোষ ধ্বংস করার ক্ষমতা আছে। আর লেবুর রসের থেকে লেবুর খোসায় ৫ থেকে ১০ গুণ বেশি ভিটামিন থাকে। কিন্তু স্বাভাবিক অবস্থায় লেবুর খোসা খাওয়াটা কষ্টকর। তবে লেবুটিকে ফ্রিজে ঠাণ্ডা বরফ করে সহজেই গ্রেট করে খাবারের ওপর ছড়িয়ে দেয়া সম্ভব।

এদিকে, লেবুর মধ্যে শুধুমাত্র ক্যান্সার বিরোধী উপাদানই নয় লেবু একইসাথে শরীরের ট’ক্সিন দূর করে , শরীরকে পুনরুজ্জীবিত করে, ব্যাকটেরিয়া ইনফেকশন এবং ছত্রাকের বি’রুদ্ধে কাজ করে। এছাড়া এটি বিভিন্ন পরজীবী এবং কৃমির ক্ষেত্রেও খুব কার্যকরী, উচ্চ র’ক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে এবং বিষণ্ণতার বি’রুদ্ধে খুব ভালো কাজ করে। পাশাপাশি এটি পারকিন্সন এর মতো অ’সুখে ও পেটের সমস্যা দূর করে এবং গলব্লাডারে স্টোন, কিডনি স্টোনকে গলিয়ে দেয়।