মাসিক অবস্থায় ইসলামে যৌন মিলন নিষিদ্ধ কেনো?

মাসিক অবস্থায় ইসলামে যৌন মিলন
উত্তরঃ ইসলাম হচ্ছে মানবজাতীর জন্য কল্যাণময় ধর্ম। মানবজাতীর সকল সমস্যার সমাধান ইসলামে আছে। ইসলাম সবার জন্যই কল্যাণ কামনা করে। আপনি যদি ইসলামের কথা মানেন তবে সেটা আপনি নিজের কল্যাণের জন্যই মানবেন। যদি না মানেন সেটা আপনার নিজেরই অকল্যাণ। আপনার এই প্রশ্নের উত্তর যদি আপনি পেতে চান তাহলে আপনাকে দেখতে হবে মাসিক অবস্থায় যৌন মিলন করলে চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা কি বলে???চিকিৎসা বিজ্ঞানীদের ধারণা, ঋতুকালে যৌন মিলন করলে কিছু ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। যেমন—১. যৌনাঞ্চলে এসময়ে প্রচুর রক্ত সঞ্চিত হয়ে থাকে। ফলে জরায়ু গ্রীবায় পুরুষাঙ্গের ধাক্কা লাগায় তলপেটে চিনচিনে ব্যথা হয়।

পড়ুন বেকিং সোডা কি? এব এটির উপকারিতা২. অত্যাধিক রক্তপাত—বেশি চাপ ও উত্তেজনার ফলে স্বাভাবিক রক্তস্রাবের থেকে বেশি রক্ত বের হয়।৩. এই সময়ে নারীর সঙ্গে জোর করে মিলিত হলে স্বামীর প্রতি তার অনিহা জন্মায়। স্বামীকে কামুক বলে মনে হয়।৪. এছাড়া রক্ত সারা অঙ্গে লেগে যায়। বিছানা নষ্ট হয়। মনে মনে অরুচিভাব জাগে। এমন কি মিলনের প্রতি মন আকৃষ্ট হতে চায় না।৫. যৌনাঙ্গের বিশ্রাম হওয়া উচিৎ।
৬. জীবাণু দ্বারা দূষিত হতে পারে স্ত্রী জননেন্দ্রিয়। এই সময় যোনি ও জরায়ুর অম্লঅধর্মী ভাল। এরা জীবাণুদের বাধা দেয়।

৭. পুরুষাঙ্গও জীবাণুদূষণ হয়ে থাকে। অনেক সময় ইন্দ্রিয় প্রদাহ দেখা দেয়।