স্ট্রো’কের স’ম্ভাব’না বাড়াচ্ছে দাঁত ও মাড়ির স’মস্যা!

সুন্দর হাসির জন্য থাকা চাই ঝকঝকে সুস্থ দাঁত। তবে দাঁত বা মাড়িতে স’মস্যা থাকলে তা কিন্তু আপনার স্বা’স্থ্যের ওপর প্র’ভাব ফেলতে পারে।

সম্প্রতি গবেষকেরা জানিয়েছেন, মুখের স্বাস্থ্যের সঙ্গে মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতারও যোগ আছে। তাদের মতে মাড়ির অসুখ এবং দাঁত পড়ে যাওয়ার সঙ্গে স্ট্রোকের যোগাযোগ আছে।

জার্নাল অব ইন্ডিয়ান পেরিডেন্টোলজি-তে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, যাদের মুখের স্বাস্থ্য ভাল নয় তাদের হৃদযন্ত্র সংক্রান্ত অসুখ হওয়ার সম্ভাবনা ২০ শতাংশ বেড়ে যায়। তবে এই বিষয়ে আরও গবেষণা করার প্রয়োজন আছে।

সম্প্রতি নিউজিল্যান্ডের রুটগরস ইউনিভার্সিটির গবেষকরা জানিয়েছেন, মুখের স্বাস্থ্য খারাপ হলে মানুষের চিন্তা করার ক্ষমতা বা মনে রাখার ক্ষমতা ধীরে ধীরে কমতে থাকে। একই সঙ্গে তারা জানিয়েছেন, যারা মানসিক অবসাদে ভুগছেন তাদের মুখের স্বাস্থ্যের দ্রুত অবনতি ঘটে।

গবেষকদের মতে অল্প বয়স থেকেই দাঁত ও মাড়ির সঠিক খেয়াল রাখা উচিত। চলুন তবে দেখে নিন কী করে দাঁত ও মাড়ি সুস্থ রাখবেন:

১. দিনে দু’বার ব্রাশ করাটা অত্যন্ত জরুরি।

২. সামনে পেছনে ব্রাশ না করে ওপর নীচে এবং নিচ থেকে ওপরে ব্রাশ করুন।

৩. সারাদিনে অন্তত ৩-৪বার হাল্কা গরম জলে কুলকুচি করুন।

৪. খাওয়ার পর ভাল করে কুলকুচি করে মুখ ধুয়ে নিন।

৫. রাতে শোওয়ার আগে ব্রাশ করা জরুরি। কিন্তু যদি রাতে ব্রাশ করার সময় না থাকে তাহলে মাউথওয়াশ দিয়ে কুলকুচি করে মুখ ধুতে হবে। এর পর আর কিছু খাওয়া চলবে না।

৬. বছরে অন্তত দু’বার ডেনটিস্টের পরামর্শ নিন।

৭. পান, সুপারি, জর্দ্দা খাওয়া সম্পূর্ণভাবে এড়িয়ে চলুন।

৮. ধূ’মপান ও ম’দ্যপান দাঁতের ক্ষতি করে।

৯. কোনোরকম স’মস্যা দেখা দিলে সঙ্গে সঙ্গে ডেনটিস্টের পরামর্শ নিন।