টিকিট পেয়ে খুশি, শ*ঙ্কা এখন করোনা পরীক্ষা নিয়ে

ফেরার টিকিট পেয়েছি। খুব ভালো লাগছে। শনিবার আমার ফ্লাইট। তবে দুশ্চিন্তাও আছে। করোনা টেস্ট করাতে হবে।’ আজ শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কথাগুলো বলছিলেন সৌদিপ্রবাসী মোহাম্মদ হোসেন।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারে সোনারগাঁও হোটেলে সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইনসের টিকিট কাউন্টার থেকে ফ্লাইটের টিকিট পেয়েই তিনি হন্তদন্ত হয়ে বের হয়ে যান। এ সময় মোহাম্মদ হোসেন বলেন, ‘মহাখালীতে করোনার নমুনা দিতে যাব। কাল রিপোর্ট না পেলে ফ্লাইট বাতিল। রিপোর্ট পজিটিভ হলেও যাওয়া হবে না।’

আজ সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইনসের কাউন্টার থেকে ৫০১ থেকে ৮৫০ নম্বর টোকেনধারী ৩৫০ জনের সৌদি ফেরার টিকিট নিশ্চিত করা হয়। এদিন সকাল ১০টা থেকে টিকিট দেওয়া শুরু হয়। তবে যাঁরাই টিকিট পেয়েছেন, তাঁদের সবার গন্তব্য ছিল মহাখালী ডিএনসিসি মার্কেটের করোনা পরীক্ষাকেন্দ্র।

আরেক সৌদিপ্রবাসী মো. সিদ্দিকও যাচ্ছিলেন মহাখালী। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘গত রোববার টোকেন নিছি। এরপর তিন দিন সৌদি এয়ারলাইনসের অফিসে ঘুরছি। আমার মা হাসপাতালে ভর্তি। টিকিট পেয়ে দেখছি কাল ফ্লাইট। কিন্তু মাকে দেখার সময় পাচ্ছি না। এখন মহাখালী যাচ্ছি করোনা টেস্ট করাতে।’

কাল শনিবার সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইনসের কাউন্টার থেকে ৮৫১ থেকে ১২০০ নম্বর টোকেনধারীদের ফেরার টিকিট দেওয়া হবে। রোববার ১২০১ থেকে ১৫০০ নম্বর টোকেনধারীদের টিকিট দেওয়া হবে। যাঁরা টোকেন পাননি, তাঁদের ২৯ সেপ্টেম্বর আসতে বলা হয়েছে। এই সময় পর্যন্ত সৌদি আরব যাওয়ার জন্য কোনো টিকিট বিক্রি করা হবে না।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশিদের সৌদি ফেরার তাড়া থাকলেও সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইনস নতুন করে কোনো ফ্লাইটের জন্য আবেদন করেনি বলে জানান বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইনস চলতি মাসে ঢাকা থেকে চারটি ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি পেয়েছিল। পরে ২৮ সেপ্টেম্বরের জন্য আরেকটি ফ্লাইটের আবেদন করে তারা। এরপর নতুন করে ফ্লাইট বাড়ানোর ব্যাপারে আর কোনো আবেদন এয়ারলাইনসটি করেনি।

সৌদিপ্রবাসীদের জন্য আজ ফেরার টিকিট ইস্যু করেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। বৃহস্পতিবারের মতো এদিনও বিমানের মতিঝিল কার্যালয় থেকে টিকিট ইস্যু করা হয়। দেশে আসা ১৮ ও ২০ মার্চ জেদ্দা এবং ১৮ ও ১৯ মার্চ রিয়াদে ফেরার জন্য রিটার্ন টিকিটধারীদের টিকিট ইস্যু করা হয়। একই তারিখের রিটার্ন টিকিটধারীদের কাছে কালও টিকিট বিক্রি করবে বিমান। ২৯ সেপ্টেম্বর জেদ্দা এবং ৩০ সেপ্টেম্বর রিয়াদে বিশেষ ফ্লাইটের জন্য বিমান এসব টিকিট ইস্যু করবে।

মতিঝিলে আজ সকাল ১০টা থেকে বিমান টিকিট ইস্যু করে। তবে ভোর থেকেই বিমান কার্যালয়ের সামনে টিকিটপ্রত্যাশী লোকজনের ভিড় শুরু হয়। ২৯ ও ৩০ সেপ্টেম্বরের ছাড়া অন্য কোনো দিন বিমানের সৌদি আরবে ফ্লাইট রয়েছে কি না, সে তথ্য জানতেই বেশির ভাগ প্রবাসী এসেছিলেন।

আবুল কালাম নামে এক সৌদিপ্রবাসী বলেন, এ মাসে রিয়াদ ও জেদ্দায় বিমানের বিশেষ ফ্লাইট যাচ্ছে। কিন্তু দাম্মাম ও মদিনায় বিমানের কোনো বিশেষ ফ্লাইট নেই। এ নিয়ে বিমান কিছুই বলছে না।