অক্ষয় আমায় ব্যবহার করে ছু’ড়ে ফেলে দিয়েছে

বয়স ৪০ কোটা পেরিয়ে গলেও, গ্ল্যামা’র যেন তাঁর ঊদ্ধমুখী। রাজ কুন্দ্রার স’ঙ্গে জমিয়ে সংসার করলেও, অক্ষয় কুমা’রের স’ঙ্গে তাঁর স’স্পর্ক এবং বি’চ্ছেদ নিয়ে এখনও সরগরম হয়ে ওঠে পেজ থ্রির পাতা।ম্যায় খিলাড়ি তু আনাড়ি-র শ্যুটিংয়ের সেট থেকেই শিল্পা শেঠির স’ঙ্গে অক্ষয় কুমা’রের স’স্পর্কের সূত্রপাত হয় বলে শোনা যায়। ​

রিল থেকে রিয়েল লাইফে স’স্পর্ক পৌঁছে যেতেই তাঁদের দূ’রন্ত প্রেম শুরু হয়ে যায়। যা নিয়ে সরগরম হয়ে ওঠে পেজ থ্রি-পাতা। কিন্তু অক্ষয়-শিল্পার দূ’রন্ত জুটি শেষ পর্যন্ত ভে’ঙে যায়। শোনা যায়, ট্যুইঙ্কেল খান্নার জন্য এরপর শিল্পার কাছ থেকে দূ’রে সরে যান অক্ষয় কুমা’র ।

ট্যুইঙ্কেল খান্নার স’ঙ্গে বিয়ের পর অক্ষয় যখন সংসার পাতিয়ে ফে’লে ন, সেই সময় অর্থাত ২০০০ সালে পুরনো প্রেমিককে নিয়ে বি’স্ফো’রণ ঘ’টনা শিল্পা শেঠি। ওই সময় এক সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাতকারে শিল্পা দা’বি করেন, অক্ষয় তাঁকে ব্যবহার করে ছুড়ে ফে’লে দিয়েছেন।

অক্ষয়ের স’ঙ্গে বি’চ্ছেদের জন্য ট্যুইঙ্কেলকে ওই সময় দোষারোপ করেননি শিল্পা শেঠি। তিনি বলেন, যখন নিজে’র কাছের মানুষই প্রতারণা করে, তখন অন্যকে দোষ দিয়ে কী হবে! ট্যুইঙ্কেলের কোনও দোষ নেই বলেও ওই সময় প্র’কাশ্যে মন্তব্য করেন শিল্পা শেঠি। অক্ষয়ই স’স্পর্ককে গু’রুত্ব দেননি। সেই কারণেই তাঁদের দুজনের মাঝে ট্যুইঙ্কেল হাজির হন বলেও মন্তব্য করেন বলিউড অভিনেত্রী। ।

শিল্পা আরও বলেন, তৃতীয় কারও জন্য অক্ষয় তাঁর স’ঙ্গে প্রতারণা ক’রেছেন। সেই কারণে ট্য়ুইঙ্কেলের উপর কোনও ক্ষোভ নেই তাঁর। তবে অতীতকে ভুলে যাওয়া ক’ঠিন। যদিও তাঁর মধ্যে সেই ক্ষ’মতা রয়েছে বলেই তিনি অতীত ভুলে নতুন করে জীবনকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পেরেছেন বলেও মন্তব্য করেন শিল্পা।

যদিও স’স্পর্ক নিয়ে একের পর এক বি’স্ফো’রণ ঘটালেও, এ বিষয়ে পালটা কখনও মন্তব্য ক’রতে দেখা যায়নি অক্ষয় কুমা’রকে। শোনা যায়, শিল্পা শেঠির জন্য এক সময় রবিনা ট্যান্ডনের স’ঙ্গে ও স’স্পর্ক ভাঙেন অক্ষয় কুমা’র।