যৌ’নক’র্মী নিয়ে তিন ব’ন্ধুর ফু’র্তি, তারপর যা ঘ’টল

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের পাইনাদী কুয়েতপ্লাজা এলাকায় বন্ধুদের ছু’রিকাঘাতে বিকাশ গাইন ওরফে কালু (২৩) নামে এক যুবক নি’হত হয়েছেন।এ ঘটনায় স্বপন (২৭) ও সবুজ (২৫) নামে নি’হতের দুই বন্ধুকে গ্রে’ফতার করেছে পু’লিশ। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার (১৫ ডিসেম্বর) ভোর ৪টায়। নি’হত বিকাশ গাইন বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জের তেতুলাপাড়া এলাকার কেশব গাইনের ছেলে।পু’লিশ ও নি’হতের স্বজনরা জানান,

শনিবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে যৌ’নকর্মী ভাড়া করে সিদ্ধিরগঞ্জের পাইনাদী কুয়েতপ্লাজা এলাকায় সারারাত ফুর্তি করে বিকাশ গাইন ওরফে কালু ও তার দুই বন্ধু।রোববার ভোরে বিষয়টি নিয়ে দুই বন্ধুর সঙ্গে কালুর ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে কালুকে ছু’রিকাঘাতে হ’ত্যা করে দুই বন্ধু। পরে কালুর ম’রদেহ ফেলে পালিয়ে যায় তারা। কিছু দূর গেলেই তাদের আ’ট’ক করে দুই মোটরসাইকেল আরোহী। পরে

পু’লিশ এসে স্বপন ও সবুজকে গ্রে’ফতার করে এবং নি’হতের ম’রদেহ উ’দ্ধার করে ম’র্গে পাঠায়।সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পু’লিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) কাম’রুল ফারুক বলেন, যৌ’নকর্মী নিয়ে বন্ধুদের সঙ্গে বিকাশ গাইন ওরফে কালু ফুর্তি করেছিল। পরে বন্ধুদের ছু’রিকাঘাতে কালু নি’হত হন। পালিয়ে যাওয়ার সময় ঘটনার সঙ্গে জ’ড়িত দুই বন্ধুকে গ্রে’ফতার করা হয়। নি’হতের ম’রদেহ উ’দ্ধার করে ময়নাত’দন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ হাসপাতাল ম’র্গে পাঠানো হয়েছে।সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পু’লিশের পরিদর্শক আজিজুল হক বলেন, এ ঘটনায় নি’হতের বড় ভাই গোবিন্দ গাইন বাদী হয়ে বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় হ’ত্যা মা’মলা করেন। নি’হত বিকাশ গাইন ওরফে কালু ভ্যানচালক ছিলেন।

টাকা দিয়ে যৌ’নতা কেনার দৌড়ে অবিবাহিত পুরুষদের হার মানাচ্ছেন বিবাহিত পুরুষরা! না লজ্জার কিছু নেই! সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় এমনটাই এক চা*ঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে। তাতে বিবাহিত পুরুষরা নিঃসন্দেহে অস্বস্তি পড়বেন। একই সঙ্গে যৌ’নতা না কিনলেও স্ত্রী’য়ের গোয়েন্দা নজরে পড়ে যেতে পারেন।

যৌ’নতা কারা কেনেন? বিবাহিত না অবিবাহিত পুরুষেরা? এই ম’র্মে সম্প্রতি একটি সমীক্ষা চালায় দক্ষিণ আফ্রিকার উইটওয়াটারস্র্যান্ড ইউনিভার্সিটি ও বেলফাস্টের কুইনস ইউনিভার্সিটির দুই প্রফেসর। আর সেই সমীক্ষায় যে তথ্য উঠে এসেছে এই চা*ঞ্চল্যকর তথ্য।সমীক্ষা বলছে, এদিকে ঝোঁক শুধু যে অবিবাহিত পুরুষদের রয়েছে তা নয়। ঝোঁক রয়েছে বিবাহিত পুরুষদেরও। বরং সেই প্রবণতায় বিবাহিত পুরুষরাই কিছুটা

এগিয়ে। ৪৪৬ জন পুরুষকে মুখোমুখি বসিয়ে প্রশ্নোত্তরের মাধ্যমে এই সমীক্ষা করা হয়। বেশিরভাগেরই বয়স ছিল ৩১ থেকে ৫০ বছর।দেখা যায়, টাকা দিয়ে যৌ’নতায় যাঁরা অভ্যস্ত, তাঁদের মধ্যে অর্ধেকই হয় বিবাহিত নয়তো কোনও স’ম্পর্কে জড়িত আছেন। আর ৫২ শতাংশকে পুরুষকে পাওয়া যায় ‘সিঙ্গল’।কিন্তু, বিবাহিত পুরুষদের ক্ষেত্রে এই প্রবণতা কেন? কেউ কারণ হিসেবে বললেন, অনেকসময়ই মহিলাদের মধ্যে আত্মবিশ্বা’সের অভাব দেখা যায়। অনেকে আবার যৌ’নতাহীন, প্রেমহীন বিয়েকে দায়ী করলেন। কারোর মতে দায়হীন স’ম্পর্কের টানেই এই পথে পা বাড়ানো।