একেই বলে ভালোবাসা! স্ত্রী’কে বাঁ’চাতে গিয়ে শরীরের ৯০ শতাংশ পুড়লো স্বামীর!

সংযু’ক্ত আরব আমিরাতের দুবাই শহরে বসবাসকারী ৩২ বছর বয়সী এক ভা’রতীয় নাগরিক নিজের অ্যাপার্টমেন্টে লাগা আ’গুন থেকে স্ত্রী’কে বাঁ’চাতে গিয়ে নিজেই ভয়াবহভাবে পু’ড়ে গেছেন।

হাসপাতা’লে ভর্তি ওই ব্যক্তির অবস্থা এখন আশ’ঙ্কাজনক। দুবাইয়ের উম আল কুয়াইন নামক এলাকার পু’লিশ বুধবার এই দুর্ঘ’টনা খবর দিয়েছে।

আরব আমিরাতের জাতীয় দৈনিক খালিজ টাইমসের অনলাইন প্রতিবেদনে ঘটনার শিকার ব্যক্তির এক আত্মীয়র বরাতে জানানো হয়েছে, দুবাই প্রবাসী ভা’রতীয় ওই নাগরিকের নাম অনীল নিনান।

তার শরীরের ৯০ শতাংশ পু’ড়ে গেছে। তিনি এখন আবু ধাবির মা’রাফ হাসপাতা’লে মৃ’ত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।

হাসপাতা’লে থাকা অনীল নিনানের আত্মীয় জুলি বলেন, ‘ডাক্তাররা বলছেন, তার অবস্থা এখন আশ’ঙ্কাজনক। আম’রা সবাই তার জন্য প্রার্থনা করছি।’ তার স্ত্রী’ও একই হাসপাতা’লে ভর্তি রয়েছেন।

তবে তার অবস্থা এখন আশ’ঙ্কামুক্ত। জুলি বলেন, ‘তার অবস্থা ভালো। তার শরীরের মাত্র ১০ শতাংশ পু’ড়েছে এবং তার শারীরিক অবস্থার অগ্রগতি হচ্ছে।’

দুবাইয়ে দুর্ঘ’টনা শিকার ওই ভা’রতীয় দম্পতির ৪ বছরের একটি ছে’লে আছে। আর আ’গুন লাগার ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার রাতে। ধারণা করা হচ্ছে, শর্ট সার্কিটের মাধ্যমে আ’গুনের সূত্রপাত।

সেই আ’গুন থেকে স্ত্রী’কে বাঁ’চাতে গিয়ে অনীল নিনান নিজেই আ’গুনের ভেতর আ’ট’কা পড়েন। পরে তাদের দুজনকে হাসপাতা’লে নিয়ে যায় প্রতিবেশীরা।

দম্পতির পরিচিত ভিকার নামের এক ব্যক্তি বলেন, ‘আম’রাও পৃকত ঘটনার বিস্তারিত কিছু জানতে পারিনি। তবে নীনু বারান্দায় থাকার সময় (অনীলের স্ত্রী’) তার শরীরে প্রথম আ’গুন লাগে। অনীল তখন ছিলেন শয়নকক্ষে। স্তীর শরীরে আ’গুন দেখে তিনি ছুটে যান তাঁকে বাঁ’চাতে, কিন্তু পরে তার শরীরই ভয়াবহভাবে আ’গুনে পু’ড়ে যায়।