সংসদে তোপের মুখে মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী মোজাম্মেল

মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয় বিতর্কিত রাজাকারের তালিকা প্রকাশ করায় সংসদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন

সরকারি দলের সংসদ সদস্যরা। তাদের ক্ষোভের জবাব দিতে গিয়ে মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল

হক বলেছেন, রাজাকারের তালিকায় যাদের নাম রয়েছে, তারা সক্রিয় ছিল কি-না, তা শুধু

যাচাই করার ব্যাপার। তবে ওনাদের নাম যে তালিকায় আছে, এতে কোনো সন্দেহ নেই। এ

ব্যাপারে সব ডকুমেন্টারি অ্যাভিডেন্স (তথ্যপ্রমাণ) আছে। তবে বিষয়টি আরও যাচাই-বাছাইয়ের প্রয়োজন রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনি এসব কথা বলেন।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে এ-সংক্রান্ত প্রশ্নটি উত্থাপন করেন সরকারি দলের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন। লিখিত প্রশ্নের পর

সম্পূরক প্রশ্নে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নেই- এই

কথাটি সরাসরি বলা যায় না। কারণ ওই মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে এটা প্রকাশ হয়েছে।

এ তালিকা সঠিক আছে কি-না, তা দেখার দায়িত্ব ছিল মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের। প্রকৃত রাজাকাররা এ তালিকায় আসেনি।

সরকারি দলের সংসদ সদস্যদের ক্ষোভের জবাব দিতে গিয়ে মন্ত্রী বলেন, রাজাকারের

তালিকায় যাদের নাম রয়েছে তারা সক্রিয় ছিল কিনা, তা শুধু যাচাই করার ব্যা

ওনাদের নাম যে তালিকায় আছে, এতে কোনো সন্দেহ নেই। এ ব্যাপারে সব ডকুমেন্টারি এ্যাভিডেন্স আছে। তবে বিষয়টি আরও যাচাই-বাছাইয়ের প্রয়োজন রয়েছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, দুঃখ প্রকাশ করে ইতোমধ্যে তালিকাটি প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে।

ভবিষ্যতে সবার সহযোগিতা নিয়ে যাচাই-বাছাই করেই স্বাধীনতাবিরোধী রাজাকারদের তালিকা প্রকাশ করা হবে।