ভালোটুকুই রেখেছি, বাকিটা ভুলে গিয়েছি: তাহসান

চলতি বছরের হিসেব নিকেশ করছেন অনেক তারকা। মেলাচ্ছেন এ বছর ক্যারিয়ার ও ব্যক্তিজীবনে তার সাফল্য নাকি ব্যর্থতার পাল্লা ভারি!কারও কারও কাছে বছরটা প্রতিকূলে থাকলেও জনপ্রিয় তারকা তাহসান খান এ বছরের হিসেব মিলিয়ে বলছেন: ২০১৯ সালে তাকে অনেক কিছু দিয়েছে।তার ভাষায়,

‘ভালোটুকুই রেখেছি। বাকিটা ভুলে গিয়েছি।’ সম্প্রতি নিজের অফিসিয়াল ফ্যানপেজে তাহসান চলতি বছরে তার উল্লেখযোগ্য কাজের ৫১টি ছবি পোস্ট দিয়েছেন।ছবিগুলো দেখার আগে তিনি উল্লেখ করেছেন, ক্যাপশন পড়া বাধ্যতামূলক।তাহসান আরও লিখেছেন: সম্ভবত আমা’র যতটুকু প্রাপ্য ছিল, তার চেয়ে বেশি পেয়েছি। ধন্যবাদ।তাহসানের এ পোস্টটিতে ১ লাখ ২৯ হাজার অনুসারী লাইক দেন। তাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে মন্তব্য করেছেন ৩৬’শ এর অধিক অনুসারী এবং পোস্টটি শেয়ার হয়েছে ১৬শ।ফ্যানপেজের পোস্টটি তাহসান নিজে তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে শেয়ার করেছেন। বন্ধু তালিকায় যারা

ছিলেন, তারাও তাহসানকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন, আগামীর জন্য শুভকামনা জানিয়েছেন।একনজরে দেখে নিন ২০১৯ সালে তাহসানের উল্লেখযোগ্য কিছু কাজের স্মৃ’তি-ছবি:আমেরিকার লস অ্যাঞ্জে’লেসের স্টেপলস সেন্টারে চলতি বছর ফেব্রুয়ারিতে ৬১তম গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডে আমন্ত্রণ পেয়েছিলেন তাহসান। এই ছবিটি সেখানকার। তাহসান এ ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন, সংগীতের প্রেমের অগণিতবার।গেল রোজার ঈদে তাহসান অ’ভিনীত ‘আশ্রয়’ নাট’কটি ব্যাপকভাবে আ’লোচিত হয়।মাবরুর রশিদ বান্নার পরিচালনায় ওই নাট’কে আরও অ’ভিনয় করেছেন মোশাররফ করিম,নুসরাত ইম’রোজ তিশা, মম। এ

নাট’কটির ছবি দিয়ে তাহসান লেখেন, কয়েকজন মেধাবী মানুষের সঙ্গে বন্ধনে আবদ্ধ।তিন প্রজন্ম। তাহসান ও তার মেয়ে আইরা তাহরিম খান পরম ভালোবাসায় আদর দিচ্ছেন তাহসানের মাকে।জা’পানের বনসাই শিল্পী কুনিও কোবাইশির সঙ্গে তাহসান। এ বছরই তাদের দেখা হয়। তাহসান এ ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন, একটি ইচ্ছেপূরণ।তাহসানের মেয়ে আইরা বাবা দিবসে তাহসানের জন্য নিজ হাতে এটি তৈরি করে। তাহসান লেখেন, সে আমা’র জন্য এটি বানিয়েছিল।ব্যস্ততা পিছু ছাড়েনা তাহসানের। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ তিনি চষে বেড়ান। এর ফাঁকে সময় বের করে মেয়েকে সময় দেন।বাবা দিবস

উদযাপন।তাহসানের নতুন অডি। তবে এ গাড়ির সঙ্গে তার ছবি তোলা হয়নি।নির্মাতা ফারুকী’র নতুন সিনেমা ‘এ বছরেও সেরা করদাতার তালিকায় আছেন তাহসান। কর প্রদান প্রসঙ্গে চ্যানেল আই অনলাইনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তাহসান বলেছিলেন, শিল্পীর সাহায্য দরকার হলে ফলাও করে প্রচার হয়। কিন্তু কত পারিশ্রমিক নিচ্ছে, কত ট্যাক্স দিচ্ছে ওই ব্যাপারগুলো আমাদের দেশে ফলাও করে প্রচার হয় না। তাই বাংলাদেশের মানুষের মনে একটা ধারণা আছে, এই ফিল্ডে (শোবিজ) কাজের মাধ্যমে হয়তো ভালো ক্যারিয়ার গড়া যায় না! অন্যমাধ্যমে কাজ করে অন্যরা সফল হয়ে যেভাবে ট্যাক্স দিচ্ছে, আম’রা

শোবিজে পেশা গড়েও একইভাবে ট্যাক্স দিচ্ছি। এখানেও ভালো কাজ করে প্রতিষ্ঠিত হওয়া সম্ভব। পরবর্তী জেনারেশন যেন এই ব্যাপারটা মাথায় রাখে।তাহসান তার ক্যারিয়ারে শততম নাট’কে অ’ভিনয় করেছেন চলতি ডিসেম্বরে। নাট’কটির নাম কল্প তরুর গল্প। এই তারকা তার শততম নাট’কটি ভক্তদের উৎসর্গ করেছেন। নাট’কের গল্প নিয়েছেন ভক্তদের থেকে। তিনি বলেন: পরিচালক বান্নাহর সাথে কথা বলতে বলতে আমাদের মাথায় এ ভাবনাটা আসে। কিন্তু গল্প বাছাই কঠিন ছিল।৭০টার মতো গল্প পড়ে আমা’র ফ্যান পেজের এডমিন ঊষা আমাকে ২৫টির মতো গল্প পাঠায়। আমি সেই ২৫টি পড়ে গল্প ‘কল্প তরুর গল্প’ বাছাই করি।