যেই ৪ টি উ’পায়ে স্বা’মীর মনে ভালো’বা’সার ঝ’ড় তুলতে পা’রে স্ত্রী

পৃথি’বীতে এমন না’রী কিন্তু খুবে’ই কম আ’ছেন যিনি স্বামী’কে ভালো রাখতে চান না। দা’ম্প’ত্য জীবনে সামান্য ঝ’গড়াঝাঁটি হলেও সব স্ত্রী’ই চান সুখী রাখতে।কিন্তু ভালো রাখার সূত্র’টি হয়তো খুঁজে পান না। যে ১০টি উপায়ে আপনি স্বা’মীকে খুশি রাখতে পারেন- ১. প্রত্যেক মানুষেই একা’ন্ত বন্ধুর সঙ্গ কামনা করে। তাই বাড়িতে স্বামীর বন্ধুবা’ন্ধব এলে বা তাদের সঙ্গে যতো সময়েই কা’টান না কেন কখনও অ’ভিযোগ করবেন না।

বরং স্বা’মীর বন্ধু ও তাদের পরি’বারকে আ’পন করে নিন। বন্ধুত্ব করে ফেলুন স্বামীর বন্ধু’দের স্ত্রী’দের স’ঙ্গে। ২. সবসময় ইতি’বাচক থাকার চেষ্টা ক’রুন। হা’সি’খুশি থাকুন। কা’জের পর বাড়ি ফিরে আপনার হাসি মুখ দেখে স্বা’মীরও ভালো লা’গবে। তবে না সং’সার সুখে-শা’ন্তিতে থাকবে। ৩. স্বা’মীর শখকে নি”জের শ’খ করে নিন।

সেটা যাই হোক না কেন। এতে করে আপনার প্রতি স্বামীর ভালো’বাসা অনেক বেড়ে যাবে। ৪. আপনি সব ধরনের রান্না না পারলেও ছুটির দিনে এমন কিছু রান্না করুন যাতে করে আপনার স্বা’মী অবাক হয়ে যায়। কারণ বউ’য়ের রান্নার প্র’শং’সা করেন না এমন স্বামী খুব কমই আছেন। ৫. স্বামী কোনও ধরনের ভুল সি’দ্ধান্ত নিলে তাকে বোঝা’নোর চে’ষ্টা করুন।

তবে তার মতামতকে গু’রুত্ব দিন। গু’রুতর কোনও বিষয় না হলে স্বামীর মতামতের বি’রোধিতা করবেন না। ৬. মা’ঝরাত্তিরে স্বামীর ফোনে কল এলেও কিছু জি’জ্ঞাসা করবেন না। যতক্ষণ না তিনি নিজে কিছু বলছেন। স্বামী লুকিয়ে প্রে’ম করলেও চেঁ’চামেচি করে কোনও লাভ নেই। মাঝখান থেকে নিজের আ’ত্মসম্মান খো’য়াবেন। বরং স্বামীর সঙ্গে ভালো আচরণ করুন। আরও ভালোবাসুন।

এতেও না ফিরলে দুজ’নে মিলে শান্তভাবে সিদ্ধান্ত নিন কী করবেন। ৭. প্রত্যেক স্বামীই তার স্ত্রী সৌ’ন্দর্য নিয়ে গর্ব করে। তাই নিজেকে সবসময় আকর্ষণীয় রাখুন। এজন্য যে পা’র্লারে যেতে হবে এমন কোনও কথা নেই। বাড়িতেই নিয়মিত টো’টকা ব্যবহার করুন। আর সবসময় পরিচ্ছন্ন, প্রি’ম অ্যা’ন্ড প্র’পার থাকুন। স্বামী হু’ট করে কফি খেতে যাওয়া বা সিনেমা দেখার প্ল্যা’ন করলে যাতে বেরিয়ে পড়তে পারেন। ৮. বিছানায় স্বা’মীকে যথাসম্ভব খুশি রাখুন।

নি’জের ই’নহি’বিশন থেকে বেরিয়ে আসুন। সময়ে’সঙ্গে সঙ্গে যৌ’’ন’তার ধ’রনধার’ণও পা’ল্টে গি’য়েছে। সেসব বিষয়ে জানুন। বিশেষ করে ও’রাল ‘, রো’ল ইত্যাদি প্র’য়োগ করুন। যে স্বা’মী বি’ছানায় তৃ’প্ত থাকেন তিনি দা’ম্পত্য অটুট রা’খতে চান। ৯. দাসীর মনো’ভাব নিয়ে নয় অন্তর থেকে স্বামীর সে’বাযত্ন করুন। কারণ তিনি আপনার ভা’লোবাসার মানুষ। ১০. দা’ম্প’ত্য জী’বনে সবচে বড় ভ’য়ঙ্কর ব্যাপারটি হচ্ছে মিথ্যা কথা। তাই স্বা’মীকে কখনও মিথ্যা বলবেন না। আর এমন কিছু করবেন না যা স্বামীকে বলতে পারবেন না।