প্রেমিকার সাথে দেখা করতে পুরো গ্রামের বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করে আসতেন প্রেমিক!

ভালবাসা এবং যুদ্ধে সবকিছু ঠিক। ১৫৭৮ সালে ব্রিটিশ কবি জন লিলি তার ‘ইউফুয়েজ’ কাব্যগ্রন্থে লিখেছিলেন কথাটি, যা প্রমাণ হলো আরেকবার। এই ঘটনাটি ভারতের বিহারের পূর্ণিয়া জেলার গণেশপুর গ্রামের। বেশ কিছুদিন ধরে সন্ধ্যা হলেই গণেশপুর বিদ্যুৎহীন হয়ে যাচ্ছিল। প্রথমে বিষয়টি গুরুত্ব দেননি কেউ।

পরে গ্রামবাসীরা দেখেন পাশের গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগ থাকলেও গণেশপুরে অন্ধকার নেমে আসছে। সন্দেহ হতেই খোঁজ নিতে শুরু করেন গ্রামবাসীদের কয়েকজন। সেই তদন্তেই যা বেরিয়ে এলো, তাতে চোখ কপালে উঠে সবার।

এরপর গ্রামবাসীরা জানতে পারেন, গণেশপুরে বিদ্যুৎ না থাকার পেছনে সরকারি দপ্তরের কোনও গাফিলতি নেই। বরং প্রতিদিন ইচ্ছাকৃত ভাবে তাদের গ্রামকে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করা হয়। আর সেই কাজটি করেন এক ইলেকট্রিশিয়ান।

আসলে গণেশপুরে ওই ব্যক্তির প্রেমিকা থাকেন। ঠিক সন্ধ্যাবেলা সবার অলক্ষ্যে ওই তরুণীর সঙ্গে দেখা করতে যান তিনি। আর গ্রামে ঢোকার আগেই পুরো এলাকা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করে দিতেন। অন্ধকারে জমিয়ে চলতো তাদের প্রেমপর্ব।

তবে এই যুগলকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন গ্রামবাসীরা। অভিযুক্ত ইলেকট্রিশিয়ানকে মারধরও করা হয়। এরপর গ্রাম প্রধানের উপস্থিতিতে দুজনকেই বসতে হয় বিয়ের পিঁড়িতে। সূত্র: জিনিউজ।