স’হ’বা’স দী’র্ঘ’স্থা’য়ী হ’য় না’রি’কে’ল তে’লে, জা’নুন ব্য’ব’হা’রে’র নি’য়’ম!

চুলের যত্নে নারিকেল তেলের ব্যাব’হার আমা’দের সবারই জানা। এছাড়া বহুবিধ কাজে ব্যবহার করা যায় এই তেল। কিন্তু অনেকেই জানেন না, শারীরিক সম্পর্কের সময় নারিকেল তেল ব্যবহার করে সময়টাকে আরো বেশি উপভ্যোগ্য করে তুলতে পারেন। এর বৈজ্ঞানিক প্রমাণও রয়েছে।

২০১৫ সালে মা’র্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একদল গবেষক বিয়টি নিয়ে গবেষণা করেন। তারা জানিয়েছেন, শারীরিক সম্পর্কের সময় ৩০ শতাংশ নারী ব্যথা পান। এই সময় নারিকেল তেলের ব্যবহার শুধু বিশেষ অ’ঙ্গের শুষ্কতা প্রতিরোধ করে তাই না, স’ঙ্গে সংবেদনশীলতা ও উত্তেজনা বাড়ায়।

ভারতের গু’জরাটের ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল অব লাইফ সায়েন্স রিসার্চের এক গবেষণা অনুসারে নারিকেল তেল ময়েশ্চারাইজার হিসাবে নিরাপদ ও কার্যকর। এছাড়া গো’পনা’ঙ্গে ব্যবহারের জন্য ক্লিনিকালি প্রমাণিত। এটির ব্যবহারের ফলে শারীরিক সম্পর্ক দীর্ঘস্থায়ী হয়।

মেনোপজের পর বিশেষ অ’ঙ্গের আশেপাশের ফ্যাটি টিস্যুগু’লো সাধারণত শুষ্ক হয়ে পড়ে। তাই শারীরিক সম্পর্কের সময় অনেক নারীই ব্যথা পান। এক্ষেত্রে নারিকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন। অনেকেই বাজারে প্রচারিত লুব্রিকেন্ট ব্যবহার করতে পারে না, ত্বকে অ্যালার্জি বা সংবেদনশীলতার কারণে। তাদের ক্ষেত্রেও নারিকেল তেল বেশ উপকারী।

তবে নারিকেল তেল কেনার সময় তা যেন খাঁটি হয় সেদিকে খেয়াল রাখু’ন। এক্সট্রা ভার্জিন কোকোনাট অয়েল ব্যবহার করতে পারলে সবচেয়ে ভালো।