ক্লা’সে’র ম’ধ্যেই স্টু’ডে’ন্টের স’ঙ্গে রো”মা’ন্টি’ক গা’নে তু’মুল না’চলেন শি’ক্ষি’কা, ভি’ডি’ও ভা’ইরা’ল

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিদিন বিভিন্ন ধরনের ভিডিও আমর’া ভাইরাল ‘হতে দেখি। সারাদিনের বেশ খানিকটা সময় আমর’া সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যয় করে থাকি এই সমস্ত ভাইরাল ভিডিওগু’লি দেখে।

করো’না মহা’মা’রীর সময় যখন সারা দেশজুড়ে লকডাউন চলছিল সেই সময়ে সোশ্যাল মিডিয়ার চাহিদা এবং গু’রুত্ব দুটোই বেড়ে যায়। গৃহবন্দী মানুষ তখন নিজেকে ব্যস্ত রাখতে সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন কার্যকলাপ করে পোস্ট করতে শুরু করে। আজকের দিনে দাঁড়িয়ে বর্তমান প্রজন্মের কাছে বিনোদনের অন্যতম মাধ্যম সোশ্যাল মিডিয়া। এখন আট’ থেকে আশি প্রায় সকলেই সোশ্যাল মিডিয়াতে নিজেদের অবসরের

বেশিরভাগটা কা’টাতে পছন্দ করেন। আর সোশ্যাল মিডিয়াও ‘হতাশ করে না তার নেটিজেনদের। প্রতিদিন প্রতিমুহূর্তে নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে একাধিক ভিডিও ও ছবি। তবে কনটেন্ট ভালো হোক কিংবা খারাপ নেটিজেনদের আকর্ষণ করতে পারলেই তা ভাইরাল হয়। বলাই বাহুল্য, বর্তমান যুগে মোবাইল ফোন আর তার সাথে ইন্টারনেট গোটা বিশ্বকে এনে দিয়েছে আমা’দের হাতের মুঠোয়।

শেষ দিনটার কথা। আমা’দের সকলেরই স্কুলের শেষ দিনটার প্রতিটা মুহূর্ত মনে থেকে গেছে। আর সেটাই স্বাভাবিক। স্কুল থেকে বরাবরের মত চলে আসার আগে একটি বিদায়ী অনুষ্ঠান হয়ে থাকে। আর সেই বিদায়ী অনুষ্ঠানে এক ছাত্র যা ঘটালো, তা হয়তো আমর’া কেউ কোনদিনও করার কথা ভাবিনি। সম্প্রতি সেই ভিডিওই নেটিজেনদের একাংশের মধ্যে ভাইরাল হয়েছে। ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে স্কুলের বিদায়ী

অনুষ্ঠানে নিজের প্রিয় শিক্ষিকার সাথে এক ছাত্র বলিউডের ব্লকবাস্টার হিট ছবি ‘আশিকি ২’এর জনপ্রিয় গান ‘তুম হি হো’তে রীতিমতো বল ডান্স করলেন। আর শেষদিনে ছাত্রদের মন রাখার জন্য শিক্ষিকাও সেই সময়টাকে উপভোগ করলেন। এই দৃশ্য দেখে ছাত্রটির বন্ধুরা সকলেই উচ্ছ্বসিত হয়ে উঠেছিলেন।

তাদের মধ্যে কেউ একজন এই মুহূর্তের ভিডিও করে একটি ছোট ইউটিউব চ্যানেল থেকে তা শেয়ার করে দেন, যা এই মুহূর্তে নেটিজেনদের একাংশের মধ্যে ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই বেশ কয়েকজন নেটনাগরিক এই ভিডিওর প্রেক্ষিতে নেতিবাচক মন্তব্য পোষণ করেছেন। তাদের কয়েকজনের মতে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের উচিৎ যেকোন পরিস্থিতিতে নিজেদের গাম্ভীর্য ছাত্র-ছাত্রীদের সামনে ধরে রাখা।

আবার কারোর মতে, এই শিক্ষিকার এমন ঘটনাঘটানো উচিৎ হয়নি। তবে যেসমস্ত ছাত্র-ছাত্রীরা এই ভিডিও দেখেছেন তাদের মনে যে এমন কান্ড ঘটানোর ইচ্ছা একবারও জাগেনি, তা কিন্তু নিশ্চিতভাবে বলা মুশকিল। কিন্তু এই ভিডিওটি দেখার পর বহু নেটভক্তরা খুব ভালোভাবে উপভোগ করেন।