সু’ন্দ’রী মে’য়ে’র ই’জ্জ’ত র’ক্ষা ক’র’লো ম’হি’ষ, ধ-র্ষ-ণে-র চে’ষ্টা’কা’রী’দে’র গু’তো দিয়ে মে’রে ফে’ল’লো!

সোশ্যাল মিডিয়া এমন একটি জায়গা যেখানে প্রতিদিন অনেক খবর, ভিডিও এবং ছবি ভাইরাল হয়। এমন খবর মাঝেমধ্যেই শোনা যায় যা জেনে সবাই অবাক হয়।

মন অনেক খবর এমনভাবে বেরিয়ে এসেছে যা মানুষের বিশ্বা’স করতে খুব কষ্ট হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেককে বোকা বানানো হচ্ছে এবং এমন পরিস্থিতিতে মানুষ অনেক সত্যি ঘটনা অবিশ্বা’স করে। এরই মধ্যে একটি খুব অদ্ভুত ঘটনা সামনে এসেছে। যেখানে একটি মহিষ মহিলার সম্মান লুণ্ঠিত হওয়ার থেকে রক্ষা করেছে। সবাই নিশ্চয় দেখেছেন যে কুকুর, তার মালিকের ওপর কেউ হা’মলা চালালে তাদের জীবনকে বাজি

রেখে দেয় মালিককে বাঁচানোর জন্য। এখানেও বি’ষয়টি গৃহপালিত পশুর সাথে সম্পর্কিত এবং এই গল্পটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে এবং লোকেরা তাদের নিজস্ব মতামত এই গল্পের মধ্যে জানাচ্ছে। যদিও এই খবরটি জানার পর আপনাকে একটু অবাক ‘’হতেই হবে। মহিষটি নারীর সম্মান বাঁচিয়ে দারুন কাজ করেছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া গল্প অনুসারে, এই ঘটনাটি থেকে আসছে। ৩০ বছর বয়সী সুন্দরী মহিলা মহিষকে ঘাস খাওয়ানোর জন্য নিয়ে যায় বনে। এদিকে ঝোঁপের মধ্যে মহিষ চড়ানোর সময় অ’ভিযক্ত বসবরাজ (৩৪) আর পরশুরাম (৩২) মহিলাটিকে ঠিকানা জিজ্ঞাসা করার বাহানায় জোরপূর্বক মহিলাকে ’শ্লী’লতাহানি শুরু করে। মহিলা প্রতিবাদ করলে উভয় তাকে জোরপূর্বক টেনে নিয়ে ঝোপের

আড়ালে নিয়ে যায় এবং তার সম্মান কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছিল। মহিলা সাহায্যের জন্য চিৎকার শুরু করে এবং আওয়াজ শুনে হঠাৎ মহিষটি সেখানে পৌঁছায় এবং উভয়কে মহিষটি গু’তো মা’রতে শুরু করে। যখন অ’ভিযুক্ত দুজনের ওপর মহিষটি আ’ক্রমণ করে তারা দুজনেই খারাপ ভাবে ভয় পায় এবং মহিলাটিকে ছেড়ে দিয়ে জীবন বাঁচানোর জন্য পালিয়ে যায়।

খবরে বলা হয়েছে যে,মহিলা উভয় অ’ভিযুক্তের বিরু’দ্ধে থানায় অ’ভিযোগ দায়ের করেছেন এবং ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি করেছেন। তার ভিত্তিতে ব্যবস্থা গ্রহণ করে সবনূর থানার পু’লিশ একটি মা’মলা দায়ের করেছে এবং একইস’ঙ্গে অ’ভিযুক্তদের খুঁজছে পু’লিশ। মা’মলাটি নথিভুক্ত করার পর যখন মহিলাটি তার বাড়িতে ফিরে আসে তখন সে তার সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনার গল্প বলে এবং বলা হচ্ছে মহিলার গল্প শোনার পর

গ্রামবাসীরা একটি মিছিল বের করে মহিষটিকে সম্মান জানানোর জন্য। মহিষের এই ভিডিও সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হচ্ছে। যাইহোক মহিষ দ্বারা করা কাজটি সত্যিই প্রশংসনীয় এবং মানুষ এই গল্পের উপর তীব্র প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছে এবং মহিষটির অসাধারণ কাজের প্রশংসা করছে সবাই।