নিজের সন্তানকে নিয়েও মার খেতে হলো মাকে

চট্টগ্রামে নিজের শি’শুকে নিয়ে বাইরে বের হয়ে গণপি’টুনির শিকার হয়েছেন এক মা। ছেলেধ’রা সন্দেহ করে একদল লোক তাকে বেধরক পে’টায়। পরে কয়েকজন যুবকের সহায়তায় একটি দোকানে ঢুকে প্রাণে বাঁচেন তিনি।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) চট্টগ্রামের বন্দর থানাধীন ইপিজেড ২নং পকেট গেট মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার একটি ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে তীব্র সমালোচনা সৃষ্টি হয়।

দোকানের মালিক মোহাম্ম’দ ইব্রাহিম জানান, ছেলেধ’রা সন্দেহে এক পথচারী ওই নারীকে মা*রধর করা শুরু করেন। এরপর আশপাশের আরও মানুষ তার ওপরে হামলে পড়ে।

একপর্যায়ে কয়েকজন যুবকের সহায়তায় জে এফ মেডিকেল হল নামে পাশের ফার্মেসি দোকানে ঢুকে পড়েন র*ক্তাক্ত ওই নারী। এ সময় তার নিজের ছেলেকেই আঁকড়ে ধরে ছিলেন তিনি।

ইব্রাহিম আরও বলেন, মা’রধরের একপর্যায়ে ওই নারী আত্ম’রক্ষার্থে আমা’র দোকানে ঢুকে পড়েন। জনতা সেখানেও ঢুকে মা’রধরের চেষ্টা চালায়। একপর্যায়ে আম’রা দোকানের
শাটার বন্ধ করে দিতে বাধ্য হই।

মাধররের শিকার ওই নারীর নাম সালমা জাহান। তিনি একটি গার্মেন্টসের সুইং অ’পারেটর। একই এলাকার বাসিন্দা ওই নারী নিজের শি’শুকে নিয়ে কোনো কাজে বের
হয়েছিলেন।

গত কিছুদিন ধরেই দেশে ছেলেধ’রার গুজব ছড়িয়ে পড়েছে। এতে ৫ জনের করুণ প্রাণহানিও হয়েছে। আ’হত হয়েছেন ২৬ জন। এসব রোধ করতে সরকার কঠোরভাবে সতর্কবার্তা দিয়েছে।

কাউকে সন্দেহ’জনক মনে হলে নিজের হাতে আইন তুলে না নিয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে জানানোর জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। এ ধরনের পরিস্থিতিতে ৯৯৯ নম্বরে কল করে
পু’লিশের সহায়তা নেওয়ারও পরাম’র্শ দেওয়া হয়েছে।