দিনাজপুরে নিজে দাঁড়িয়ে থেকে স্ত্রী ও প্রেমিকের বিয়ে দেওয়ালেন স্বামী

কথায় বলে, কাউকে সত্যি ভালবাসলে তাকে আটকে রাখতে নেই। ভালবাসলে যেতে দিতে হয়। সেই কথাটিই যেন আরও একবার প্রমাণ করলেন গঙ্গারামপুরের প্রান্তিক মহন্ত। নিজেই দাঁড়িয়ে থেকে স্ত্রীর হাত তুলে দিলেন প্রেমিকের কাছে। পুলিসের গাড়িতে বসেই হল সিঁদুরদান।

পেশায় টোটোচালক প্রান্তিক মহন্তের স্ত্রী সমাপ্তি। সমাপ্তির সঙ্গে ফেসবুকে আলাপ হয় পুলিসকর্মী গৌতম সরকারের।

কথা বলতে বলতে বন্ধুত্ব গড়ায় প্রেমে। গঙ্গারামপুরে সমাপ্তির সঙ্গে নিয়মিত দেখাও করেন গৌতমবাবু। বৃহস্পতিবার দুপুরে বাড়ি ছিলেন না প্রান্তিকবাবু। সেই সময়ে প্রেমিকার সঙ্গে তাঁর বাড়িতেই দেখা করতে আসেন গৌতমবাবু। পড়শিরা গোলমাল আন্দাজ করে বাইরে থেকে দরজায় তালা মেরে দেন।

খবর পেয়ে তড়িঘড়ি হাজির হন প্রান্তিক মহন্ত। বিন্দুমাত্র রাগ না দেখিয়ে ঠান্ডা মাথায় স্ত্রীয়ের সঙ্গে বিষয়টি আলোচনা করেন তিনি। তাঁদের দুই সন্তানের দায়িত্বভার নিয়েও কথা হয়।

প্রেমিকের সঙ্গে স্ত্রীর বিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন প্রান্তিক। সম্মত হন পড়শিরাও। প্রেমিককে বিয়ে করতে রাজি হয়ে যান সমাপ্তিও। অমত ছিল না গৌতমবাবুরও। এর পর পুলিসের গাড়িতে বসেই বিয়ে হয় সমাপ্তি ও গৌতমের।

গাড়িতেই হল সিঁদুরদান। নিজে দাঁড়িয়ে থেকে স্ত্রী ও তার প্রেমিকের বিয়ে দিলেন প্রান্তিক মহন্ত। এমন অভিনব কাণ্ড দেখতে ভিড় জমান এলাকাবাসী। প্রান্তিকবাবু জানান, দুই ছেলের ভবিষ্যতের কথা ভেবেই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।জিনিউজ।।