রোগী সেজে ভুয়া চক্ষু চিকিৎসক ধরলেন এএসপি

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ রোগী সেজে ভুয়া চক্ষু চিকিৎসক ধরলেন চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. আফজাল হোসেন। তিনি বলেন, প্রায় আড়াই বছর ধরে ইমন চৌধুরী এই ভুয়া চিকিৎসক সেজে রোগীদের চিকিৎসা দিয়ে আসছেন।মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) সন্ধ্যায় হাজীগঞ্জ বাজারের বিশ্বরোডস্থ নিউ লায়ন্স চক্ষু হাসপাতালের ভুয়া চিকিৎসক ইমন চৌধুরীকে গ্রেফতার করা হয়।

জানা গেছে, ইমন চৌধুরীর গ্রামের বাড়ি ফরিদপুর জেলায়। এই ভুয়া চিকিৎসক ফরিদপুরের একটি কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেছেন বলেও দাবি করেন।চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে কর্মজীবন হলেও তার স্ত্রী ও সন্তানরা থাকেন ঢাকায়।

হাজীগঞ্জ থানা পুলিশের এক সদস্য রোগী সেজে নিউ লায়ন্স চক্ষু হাসপাতালে যান। ওই সময় ভুয়া চিকিৎসক ইমন চৌধুরী তার বাম চোখ অপারেশনের কথা বলেন।

এক পর্যায়ে প্রস্তুত থাকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফজাল হোসেন ও পুলিশের একটি ফোর্স হাসপাতালে হানা দিলে ভুয়া চিকিৎসক ইমন চৌধুরী কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারেননি।তিনি চিকিৎসকের পাশাপাশি হাসপাতালে ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফজাল হোসেন যুগান্তরকে জানান, ভুয়া চিকিৎসক ইমন চৌধুরীকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। তাকে জেলহাজতে পাঠানো হবে। অভিযানে অংশ নেন হাজীগঞ্জ থানা পুলিশের এসআই ফারুক হোসেনসহ গোয়েন্দা পুলিশ সদস্যরা।