এবার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরষ্কার পেলেন সূচিত্রা সেনের নাতনী রাইমা সেন!

রাই’মা সেন, ভারত-বাংলাদেশ দু’দেশেই ব্যাপক পরিচিত একটা নাম। ভারতীয় এই অ’ভিনেত্রী শুধু কলকাতার বাংলা সিনেমা’র মাঝেই নিজেকে আ’ট’কে রাখেননি, একাধারে অ’ভিনয় করে চলেছেন বাংলা, হিন্দি, তেলুগু ও মালায়াম ছবিতে। মোহনীয় রুপ আর কাজল টানা নয়নের ইশারায় অগুনতি পুরুষের হৃদয় আ’ন্দোলিত করেছেন রাই’মা। যেমনি তার রূপ তেমনি তার অ’ভিনয়। কারণ মহানায়িকা সূচিত্রা সেনের নাতনী আর মুনমুন সেনের মে’য়ে তিনি। পারিবারিক সূত্রেই র’ক্তে মিশে রয়েছে অ’ভিনয়ের মূল মন্ত্র। তারই প্রমাণ অ’ভিনয়ের মাধ্যমে দিয়েছেন, যার ফলশ্রুতিতে শ্রেষ্ঠ অ’ভিনেত্রীর খেতাব লুফে পেলেন রাই’মা।

ভারতের হায়দরাবাদের চলচ্চিত্র উৎসবের শ্রেষ্ঠ অ’ভিনেত্রীর পুরষ্কার পেয়েছেন রাই’মা। চূর্ণী গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘তারিখ’ ছবির জন্য তিনি এ পুরষ্কার পেয়েছেন। এ বছর উৎসবে সেরা ছবি নির্বাচিত হয়েছে ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্তের ‘কেদারা’। সেরা অ’ভিনেতা হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন ঋত্বিক চক্রবর্তী। কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘নগরকী’র্তন’ ছবির জন্য সেরা অ’ভিনেতার পুরস্কার পান ঋত্বিক।

সেরা চিত্রনাট্যের জন্য পুরস্কৃত হয়েছেন চূর্ণী গঙ্গোপাধ্যায়। পরিচালনার পাশাপাশি ‘তারিখ’-এর চিত্রনাট্যও লিখেছিলেন তিনি। এডিটিংয়ের জন্য পুরস্কার পেয়েছেন শুভজিৎ সিংহ। সেরা চিত্রগ্রাহকের পুরস্কার গিয়েছে ‘কেদারা’-র শুভঙ্কর ভড়ের ঝুলিতে। সাউন্ড ডিজাইনের জন্যও নির্বাচিত হয়েছে ‘কেদারা’র নাম। অনির্বাণ সেনগুপ্ত পেয়েছেন পুরস্কার।

এ বছর এ চলচ্চিত্র উৎসবে জুরি ছিলেন তিনজন চিত্রপরিচালক শেখর দাস, শতরূপা সান্যাল ও বৌদ্ধায়ন মুখোপাধ্যায়। ১৮ জুলাই থেকে শুরু করে চলচ্চিত্র উৎসব চলে ২১ জুলাই পর্যন্ত।