এমএ পাস করেও ফুটপাতের ফল বিক্রেতা আরিফ

আরিফ উদ্দিন বলেন, আমি সিলেটের ম’দন মোহন কলেজ থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ থেকে স্নাতক পাস করেছি। এরপর এমসি কলেজ থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে এমএ পাস করেছি।

দুই’মাস আগে চাকরির সন্ধানে সিলেট থেকে ঢাকা এসেছি। কিন্তু অনেক চেষ্টা করেও কোনো চাকরির সন্ধান পাচ্ছি না।

ঢাকাতে থাকতে যে অর্থ দরকার তা পরিবার থেকে আনতে পারছি না। বাধ্য হয়ে বন্ধুদের কাছ থেকে ঋণ নিয়ে ফুটপাতে ফলের দোকান দিয়ে ঢাকায় থাকার খরচ জোগাড় করছি।

লুঙ্গি পড়া অবস্থায় ঢাকার ভাসানটেক এলাকায় ফুটপাতে আনারস, জাম্বুরা ও পেয়ারা বিক্রি করা এক যুবক একটি ভিডিও সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

যে ভিডিওটি নিজের ফেসবুক ওয়ালে প্রচার করেন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মুহাম্ম’দ রাশেদ খাঁন।

খোঁজ নিয়ে যায় সিলেটের ঐতিহ্যবাহী এমসি কলেজ থেকে এমএ পাস করেছেন আরিফ উদ্দিন নামের ওই যুবক।

চাকরির জন্য মানসিক চাপে ভুগছেন জানিয়ে আরিফ বলেন, আম’রা বয়স এখন ২৭। আর ৩ বছর আছে সরকারি চাকরির জন্য।

পড়ালেখা শেষে পরিবার থেকে প্রতিনিয়ত চাপ আসছে চাকরির জন্য। আমা’র আরও অনেক বন্ধু আছে যারা প্রতি শুক্রবার ঢাকায় আসে চাকরির পরীক্ষার জন্য।

তারাও আমা’র মতো হতাশ।জানা গেছে, আরিফ উদ্দিনের বাড়ি সুনামগঞ্জ জে’লার বিশ্বম্ভপুর উপজে’লার ধনপুর ইউনিয়নে।

আরিফ উদ্দিন বলেন, আমা’র পরিবারের অবস্থা তেমন ভালো না। যেহেতু অনার্স ও মাস্টার্স শেষ করেছি তাই বাবা-মা’র কাছ থেকে টাকা আনতে বিবেকে বাধা দেয়।

এখন বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরির আবেদন করছি। সরকারি বিভিন্ন চাকরির জন্য ২ শ, ৩ শ, ৪ শ টাকা দিয়ে আবেদন করতে হয়। এই টাকা প্রতিমাসে সংগ্রহ করা কঠিন হয়ে যায়।

রোববার নিউইয়র্কের মেমোরিয়াল স্লোয়ান কেটেরিং ক্যানসার সেন্টারে চিকিৎসাধীন খোকার শয্যাপাশে কিছু সময় অতিবাহিত করেন তিনি। খোকাকে দেখে তার দ্রুত আরোগ্য কামনা ও তার প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করেছেন এই আওয়ামী লীগ নেতা।

সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ঢাকা থেকে খবর পেয়েছি মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকা ভাই খুব অসুস্থ। উনি নিউইয়র্কের স্লোয়ান কেটেরিংয়ে আছেন।

আমি নিউইয়র্ক এয়ারপোর্ট থেকে সোজা এখানে এসেছি উনাকে একনজর দেখার জন্য। আল্লাহ উনাকে সুস্থতা দান করুক। আল্লাহ উনার পরিবারকে ধৈর্য ধারণ করার ক্ষমতা দিক।

বাংলাদেশের জনগণ তার দিকে তাকিয়ে আছে উল্লেখ করে সিদ্দিকুর রহমান বলেন, খোকা ভাই সুস্থ হবেন এই খবর শোনার জন্য দেশবাসী অপেক্ষায় আছে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীও খোঁজ-খবর নিয়েছেন। আইনিভাবে যদিও উনার দেশের যাওয়ার ক্ষেত্রে বাধা আছে কিন্তু মানবিক দিক বিবেচনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন

যেকোনোভাবেই তাকে দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হোক। আমি এখন যা দেখলাম তাতে মনে হচ্ছে না উনি আর দেশে ফিরে যেতে পারবেন।